বিজ্ঞাপন

বরিশালে এক বাড়িতে ৩ লাশ, পুলিশের ধারণা ‘খুন’

December 7, 2019 | 8:39 am

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

বরিশাল: বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় এক প্রবাসীর বাড়ি থেকে তার মাসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে সালিয়াবাকপুর গ্রামে কুয়েত প্রবাসী আবদুর রবের বাড়ি থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

নিহতরা হলেন আবদুর রবের মা মরিয়ম বেগম (৭০), ভগ্নিপতি সফিকুল আলম এবং রবের খালাতো ভাই ইউসুফ (৩২)।

বরিশালের পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, বৃদ্ধা মরিয়ম বেগমের লাশ পড়ে ছিল ঘরের বারান্দায়। তার জামাতা সফিকুল ইসলামের লাশ লেপ দিয়ে ঘরে মোড়ানো অবস্থায় ছিল। আর ইউসুফের লাশ হাত-পা বাঁধা অবস্থায় বাড়ির পাশের একটি পুকুরে পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ সুপার জানান, ধারণা করা হচ্ছে, ওই তিনজনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। ওই বাড়ি থেকে আলামত সংগ্রহ করে জেলা পুলিশ এরইমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে। পারিবারিক কিংবা জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে তাদের খুন করা হয়েছে কিনা— সেই বিষয়টি মাথায় রেখে পুলিশ তদন্ত চালাচ্ছে।

পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, কী কারণে তাদের হত্যা করা হয়েছে তা পুলিশ এখনও নিশ্চিত নয়। ধারণা করা হচ্ছে, ওই তিনজনকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। তবে লাশের ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

বানারীপাড়া থানার ওসি শিশির কুমার পাল সারাবাংলাকে বলেন, ‘খবর পেয়ে সকাল ৮টার দিকে আমরা সালিয়াবাকপুর গ্রামে যাই। সেখানে প্রবাসী আবদুর রবের বাড়ি থেকে তার মা ও দুই স্বজনের লাশ উদ্ধার করি। লাশগুলো ময়নাতদন্তের জন্য শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

পুলিশ জানায়, ওই বাড়িতে রবের স্ত্রী আছিয়া বেগম ও তার খালাতো বোন এইচএসসির ছাত্রী মিসরাত জাহান মিশুও ছিলেন। রাতে খাবার খেয়ে অন্যদের সঙ্গে তারাও ঘুমিয়ে পড়েন। তবে তারা ঘটনাটি টের পাননি বলে পুলিশকে জানিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সলিয়াবাকপুরের হাফেজ আবদুর রব কুয়েতের একটি মসজিদে ইমামতি করেন। তার বাড়িতে বৃদ্ধ মা মরিয়ম বেগম ও বোনের ছেলে ইউসুফ থাকতেন। দুইদিন আগে আবদুর রবের ভগ্নিপতি সফিকুল আলম ওই বাড়িতে বেড়াতে আসেন।

সফিকুলের বাড়ি পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার আকলম গ্রামে।

স্থানীয়দের ধারণা, রাতের কোনো এক সময় খুনিরা ওই বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন। পরে সুযোগ বুঝে খুন করে পালিয়ে যায়। একতলা বাড়ির ছাদের দরজা-জানালা বন্ধ থাকায় খুনিরা সিঁড়ি বেয়ে ঘরের ছাদ দিয়ে পালিয়ে যায়।

সারাবাংলা/এনএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন