বিজ্ঞাপন

রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদফতর

July 7, 2020 | 3:57 pm

সৈকত ভৌমিক, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: মেয়াদোর্ত্তীণ লাইসেন্সসহ নানা ধরণের প্রতারণা ও অনিয়মের অভিযোগের রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে করা সমঝোতা চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। একইসঙ্গে এই হাসপাতালের অনুমোদনও বাতিল করা হবে বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র সারাবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্রে জানা যায়, রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে আসা নানারকম অনিয়মের অভিযোগে প্রেক্ষিতে এই সমঝোতা চুক্তি বাতিল করা হচ্ছে। গত ২১ মার্চ স্বাস্থ্য অধিদফতরের সঙ্গে চুক্তিতে রিজেন্ট হাসপাতালের দু’টি শাখায় ৫০টি শয্যাকে আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে ব্যবহার করার চুক্তি হয়। একই সঙ্গে এই হাসপাতালের ৩টি আইসিইউ বেডকে কোভিড-১৯ শনাক্ত হওয়া ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ব্যবহার হবে বলেও চুক্তিতে উল্লেখ করা হয়। একই সঙ্গে এই হাসপাতালের তিনটি অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করার কথাও উল্লেখ করা হয় চুক্তিতে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু প্রথম থেকেই হাসপাতালে টাকা নিয়ে চিকিৎসাসেবা দিয়ে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও নানা রকমের অনিয়মের অভিযোগে হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে বারবার বলা হয়। একইসঙ্গে যদি টাকা নিয়েই চিকিৎসা করতে হয় তবে সমঝোতা চুক্তি পরিবর্তন করার কথাও বলা হয়। কিন্তু প্রতিবারই নানারকম অজুহাতে সেটি করতে রাজি হয়নি রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এমন অবস্থায় রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করতে যাচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদফতর
খুব দ্রুতই এই চুক্তি বাতিল বিষয়ে গণমাধ্যমে জানানো হবে বলেও জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের এই নির্ভরযোগ্য সূত্র।

এর আগে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (হাসপাতাল) ডা. আমিনুল হাসান সারাবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের কাছে যতবার অভিযোগ এসেছে, ততবারই আমরা প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে ফোন করে জানিয়েছি। তারপরও কোনো দৃশ্যমান উদ্যোগ নিতে দেখিনি। রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে আমাদের চিঠি চালাচালি অনেক হয়েছে, এটা সত্যি। প্রথমদিকে আসলে এই হাসপাতালটি এগিয়ে আসায় আমরা চিকিৎসাসেবা দেওয়ার বিষয়ে রাজি হই। পরে নানা অনিয়মের কারণে তাদের সঙ্গে আমাদের সমঝোতা চুক্তিতে পরিবর্তন আনতে হয়।’

এর আগে, গতকাল ৬ জুলাই বেলা ২টা থেকে র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে একটি দল প্রথমে উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরের ১৭ নম্বর সড়কে অবস্থিত রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায়। র‌্যাবের আরেকটি দল রিজেন্ট হাসপাতালের মিরপুর শাখায় অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে আট জনকে আটক করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন সারোয়ার আলম।

আরও পড়ুন:
পরীক্ষা ছাড়াই করোনার রিপোর্ট দিত রিজেন্ট হাসপাতাল
কোভিড চিকিৎসা নিয়ে প্রতারণা: রিজেন্ট হাসপাতালে র‌্যাবের হানা
মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স নিয়েই রিজেন্ট হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা! 

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন