বিজ্ঞাপন

‘ডিবি পরিচয়ে অস্ত্র ও মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে চলতো ছিনতাই’

September 29, 2020 | 1:54 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ‘রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার আশেপাশের এলাকার বিভিন্ন ব্যাংক কিংবা প্রতিষ্ঠানে টাকা বহনকারী ব্যক্তিকে টার্গেট করত ভুয়া ডিবি। তারা অস্ত্রের ও মাদক মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে টাকা, মূল্যবান স্বর্ণকার ছিনিয়ে নিয়ে নির্জন স্থানে ফেলে পালিয়ে যেতো।’

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান। গতকাল সোমবার যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে একটি চক্রকে গ্রেফতার করে ডিএমপির গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারি বিভাগ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মো. বারেক, মো. আবুল কাশেম ও মো. স্বপন আকন্দ। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড পিস্তলের কার্তুজ, একটি ডিবি লেখা জ্যাকেট ও একটি ওয়্যারলেস জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা ও ঢাকার আশেপাশে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে টাকা বহনকারী ব্যক্তিকে টার্গেট করত বারেক বাহিনী। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে বারেক দীর্ঘদিন ধরে ছিনতাই করে আসছে।’

‘ডিবি পরিচয়ে অস্ত্র ও মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে চলতো ছিনতাই’

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘ভুয়া ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে প্রাইভেটকারে টাকা বহনকারী ব্যক্তিকে টার্গেট করে অবৈধ অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে কিংবা মাদক মামলা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তাদের গাড়িয়ে উঠিয়ে টাকা-পয়সা ও মূল্যবান স্বর্ণকার ছিনিয়ে নিয়ে নির্জন স্থানে ফেলে পালিয়ে যেত।’

ডিবির কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘ডিএমপির তালিকাভুক্ত শীর্ষ ছিনতাইকারী গ্রেফতার বারেকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় আটটি মামলা রয়েছে। আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে রয়েছে সাতটি ও স্বপন আকন্দের বিরুদ্ধে রয়েছে নয়টি মামলা।’

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানায় ডাকাতির প্রস্তুতি গ্রহণ ও অস্ত্র আইনে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সারাবাংলা/ইউজে/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন