বিজ্ঞাপন

এসএসসিতে পাসের হার ৮২.৮৭ শতাংশ

May 31, 2020 | 11:26 am

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: এ বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় সারাদেশে পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ। গত বছরের তুলনায় এ হার সামান্য বেশি। গত বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

রোববার (৩১ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পরীক্ষার ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পরে তিনি শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে ফল ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন- শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলছে না এখনই, জানালেন প্রধানমন্ত্রী

বিজ্ঞাপন

প্রকাশিত ফলে দেখা যায়, এ বছর ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৮৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। অন্যদিকে মাদরাসা বোর্ডে পাসের হার ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

এদিকে, ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বিভাগভিত্তিক ফলে দেখা যায়, বিজ্ঞান বিভাগে পাস করেছে সবচেয়ে বেশি ৯৪ দশমিক ৫৪ শতাংশ। এছাড়া মানবিকে ৭৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের পরীক্ষার্থীদের পাসের হার ৮৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। এ বছর দেশের বাইরের ৯টি কেন্দ্রে ৩৩৬ পরীক্ষার্থী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। এর মধ্যে পাস করেছে ৩১৮ জন। পাসের হার ৯৪ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

আরও পড়ুন- টানা ৫ বছর এসএসসিতে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এগিয়ে

এ বছর রাজশাহী বোর্ডে পাসের হার সবচেয়ে বেশি ৯০ দশমিক ৩৭ শতাংশ। অন্যান্য বোর্ডের মধ্যে ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৮২ দশমিক ৩৪ শতাংশ, দিনাজপুর বোর্ড ৮২ দশমিক ৭৩ শতাংশ, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৮৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ, যশোর বোর্ডে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৩১ শতাংশ, বরিশাল বোর্ডে ৭৯ দশমিক ৭০ শতাংশ, কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৮৫ দশমিক ২২ শতাংশ, সিলেট বোর্ডে পাসের হার ৭৮ দশমিক ৭৯ শতাংশ, ময়মনসিংহ বোর্ডে পাসের হার ৮০ দশমিক ১৩ শতাংশ। এছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডে ৮২ দশমিক ৫১ শতাংশ এবং কারিগরি বোর্ডে পাসের হার ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী এ বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। এরপর ফলাফল সরাসরি শিক্ষার্থীদের ফোনে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটগুলোতেও ফল প্রকাশ করা হয় একই সময়ে।

আরও পড়ুন- অর্থনীতির চাকাটা সচল রাখতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

মোট ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের আওতায় এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় ১৬ লাখ ৩৫ হাজার ২৪০ শিক্ষার্থী, এর মধ্যে আট লাখ ৪৩ হাজার ৩২২ ছাত্রী। ছাত্রের তুলনায় ৫১ হাজার ৪০৪ ছাত্রী বেশি।

এছাড়া মাদরাসা বোর্ডের দাখিল পরীক্ষায় অংশ নেয় দুই লাখ ৮১ হাজার ২৫৪ জন। ছাত্রী অংশ নেয় এক লাখ ৪৭ হাজার ১১৬ জন। ছাত্রের তুলনায় ১২ হাজার ৯৭৮ জন বেশি। এছাড়া কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় এক লাখ ৩১ হাজার ২৮৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

আরও পড়ুন-

মানুষের কল্যাণে নিবেদিত হওয়ার শিক্ষা দিন: প্রধানমন্ত্রী

সারাবাংলা/টিএস/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
রেমিট্যান্স-রিজার্ভের রেকর্ডেও স্বস্তি পাচ্ছেন না অর্থনীতিবিদরাজমজমাট এফডিসি’তে আজ শুধুই শূন্যতা, চাপা হাহাকার [ফটোস্টোরি]নিয়মিত কোর্ট চালুসহ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ৭ সুপারিশসালমান খানের রেকর্ড পারিশ্রমিক‘যুগে যুগে সংকটে তরুণরাই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে’রাঙামাটিতে বিআরডিবি’র পরিদর্শকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলাবিভিন্ন ব্র্যান্ডের কোটি টাকার নকল কসমেটিকস জব্দ করেছে বিএসটিআইঠাকুরগাঁওয়ে পৌরসভার রাস্তা নির্মাণে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগপুনরায় ক্রিকেট: অপেক্ষা বাড়াচ্ছে সাউদাম্পটনের আকাশমাছে ক্ষতিকর রাসায়নিক মেশালে ৭ বছরের জেল, জরিমানা ৫ লাখ টাকা সব খবর...
বিজ্ঞাপন