বিজ্ঞাপন

আপাতত সিডন্সই শেখাবেন পাওয়ার হিটিং

August 18, 2022 | 4:44 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

সামনে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ছড়াছড়ি। কদিন পর এশিয়া কাপ, তারপর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আর এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের দুর্বলতা পুরনো। সাম্প্রতিক সময়ের পরিসংখ্যান আরও নাজুক। সর্বশেষ ১০ টি-টোয়েন্টির মাত্র দুটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। বারবার পাওয়ার হিটিংয়ে ভুগছেন টাইগাররা। আপাতত ব্যাটারদের পাওয়ার হিটিংয়ের কাজটি শেখানোর দায়িত্ব সামলাবেন ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্স।

বিজ্ঞাপন

আধুনিক টি-টোয়েন্টিতে হরহামেশাই ১৮০ বা তার বেশি রান উঠতে দেখা যায়। বাংলাদেশ পিছিয়ে এই জায়গাতেই। বড় স্কোর গড়ার ব্যর্থতা বাংলাদেশের। পাওয়ার হিটিং ব্যাটার নেই স্কোয়াডে। ক্যামিও ইনিংস খেলতে পারছেন না কেউ। যাতে রানও আটকে থাকছে দেড়শর আশেপাশে।

এই দুর্বলতা কাটিয়ে উঠতে একজন পাওয়ার হিটিং কোচ নিয়োগের চিন্তা করছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানালেন, আপাতত সেই চিন্তা থেকে সরে এসেছে বিসিবি। ব্যাটারদের পাওয়ার হিটিং শেখানোর দায়িত্ব নিয়েছেন ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্সই।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) হঠাৎ করেই মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিমদের অনুশীলন দেখতে যান নাজমুল হাসান পাপন। আলাপ করেছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ ও নতুন টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের সঙ্গে।

বিজ্ঞাপন
আপাতত সিডন্সই শেখাবেন পাওয়ার হিটিং

তারপর সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পাপন বলেন, ‘কদিন আগে জেমি সিডন্স আমার বাসায় এসেছিল। কিছু বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করছিলাম। যদি আমরা জিততে চাই বা ভালো করতে চাই টি-টোয়েন্টির ভাবনাটা পরিবর্তন করতে হবে। এটার কোনো বিকল্প নেই। ১৩০ করে তো ম্যাচ জিততে পারবেন না। আমাদের ১৮০-২০০ করতে হবে। এটা মাথায় রাখতে হবে। এখন আমাদের যে পরিকল্পনা ওইটা করার কোনো লক্ষণই দেখছি না। এটা নিয়ে নতুন করে কী করা যায় এটা নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। তখন জেমি এসে বলল যে সে নাকি এটাতে (পাওয়ার হিটিংয়ে) খুবই আগ্রহী।’

বিজ্ঞাপন

জিম্বাবুয়ে সিরিজের ব্যর্থতা শেষে কদিন ধরে মিরপুরে অনুশীলন করছেন ক্রিকেটাররা। জেমি সিডন্সকে নিয়মিতই দেখা যাচ্ছে ব্যাটারদের নিয়ে কাজ করতে। বিসিবির ভাবনা, হুট করেই নতুন কাউকে আনা মানেই সমস্যার সমাধান নয়। কারণ সামনেই বড় বড় দুই টুর্নামেন্ট।

পাপন বলেন, ‘আমরা একটা পাওয়ার হিটিং কোচ নিয়ে আলোচনা করছিলাম। তখন জেমি বলল তাঁর নাকি এটাতে বিশেষত্ব আছে। তাই আমরা এই এশিয়া কাপটা দেখছি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে পরবর্তী বিশ্বকাপ। কারণ খেলা অস্ট্রেলিয়ায়, সেখানে চ্যালেঞ্জও বেশি। ওই সব জায়গায় তো আমরা এমনিতেই স্ট্রাগল করি। সেটার কথা মাথায় রেখে আমরা কাজ করছি। এই এশিয়া কাপে আমরা কিছু জিনিস পরিবর্তন করে দেখতে চাচ্ছি যে সব ঠিক আছে কি না। আর বেশি সময়ও হাতে নেই। হুট করে যে একজন কোচ এনে সব উন্নতি করে ফেলব এটা ভাবা ঠিক হবে না।’

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএইচএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন