বিজ্ঞাপন

এসেছে রাজহংস, পাখা মেলবে ১৭ সেপ্টেম্বর

September 14, 2019 | 8:31 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশ বিমানের ৪র্থ বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ ঢাকায় এসে পৌঁছেছে। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আকাশে পাখা মেলবে উড়োজাহাজটি।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায় বিমানটি। তবে নির্ধারিত সময়ের ১ ঘণ্টা দেরিতে পৌঁছায় ‘রাজহংস’। রীতি অনুযায়ী, ওয়াটার ক্যানন সেলুটের মাধ্যমে এটিকে বরণ করে নেওয়া হয়। বিকেলে বিমানের জনসংযোগ শাখার উপ মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) তাহেরা খন্দকার সারাবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘শনিবার দুপুরে ড্রিমলাইনার বিমান রাজহংস অবতরণের কথা থাকলেও বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটে অবতরণ করে। সকালের দিকে বিমানটি নামলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করার কথা ছিল, কিন্তু দেরিতে নামায় তা সম্ভব হয়নি। এজন্য আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেল ৪টায় বিমানটি উদ্বোধনের সময় দিয়েছেন। ওইদিনই বিমানটি যাত্রী পরিবহন শুরু করবে।’

বিজ্ঞাপন

এর আগে, যুক্তরাষ্ট্র থেকে স্থানীয় সময় ১৩ সেপ্টেম্বর বেলা ১২টা ৪৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসে ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’। তার আগে, লাল ফিতা কেটে নতুন ড্রিমলাইনারের যাত্রার উদ্বোধন হয়। বাংলাদেশ বিমানের পাইলট ক্যাপ্টেন শোয়েব চৌধুরী, ক্যাপ্টেন সরওয়ার, ফার্স্ট অফিসার জামিল ও আতিয়াব একটানা ১৫ ঘণ্টা চালিয়ে ড্রিমলাইনারটি নিয়ে আসেন।

গত বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ বিমানের বহরে যুক্ত হওয়ার কথা ছিল বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত ও সম্পূর্ণ নতুন বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ ‘রাজহংসের’। কিন্তু রাডার ব্যবস্থাপনায় ত্রুটির কারণে অতিরিক্ত ৪৮ ঘণ্টা সময় চেয়েছিলো বোয়িং কোম্পানি। এটি যুক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বিমান বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা এখন ১৬টি।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া চারটি ড্রিমলাইনারের নাম পছন্দ ও বাছাই করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এগুলো হলো আকাশবীণা, হংসবলাকা, গাঙচিল ও রাজহংস। উল্লেখ্য, এর আগে ৪টি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, ২টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০-ইআর এর নামও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন। সেগুলো হলো- পালকি, অরুণ আলো, আকাশ প্রদীপ, রাঙা প্রভাত, মেঘদূত এবং ময়ূরপঙ্খী।

টানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে সক্ষম এই ড্রিমলাইনার চালাতে অন্যান্য বিমানের তুলনায় ২০ শতাংশ কম জ্বালানি লাগবে। ‘রাজহংস’-এর আসন সংখ্যা ২৭১টি। বিজনেস ক্লাস ২৪টি আর ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস। বিজনেস ক্লাসে ২৪টি আসন ১৮০ ডিগ্রি পর্যন্ত রিক্লাইন্ড সুবিধা এবং সর্ম্পূণ ফ্ল্যাটবেড হওয়ায় যাত্রীরা আরামদায়কভাবে স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গে ভ্রমণ করতে পারবেন। বিমানটিতে যাত্রীরা অন্যান্য আধুনিক সুবিধা, ইন্টারনেট ও ফোন কল করার সুবিধাও পাবেন।

সারাবাংলা/ইউজে/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন