সোমবার ২৭ মে, ২০১৯ ইং , ১৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ রমজান, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

এখনও খেলার সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়নি সাকিবের

মে ১৬, ২০১৯ | ৮:৪৯ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ের সময় সাইড স্ট্রেনের ব্যথা নিয়ে মাঠ ছাড়া সাকিব আল হাসানের চোট গুরুতর নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। তাই আপাতত তাকে একদিনের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। ফাইনাল ম্যাচের ঠিক আগ মুহূর্তে তার অবস্থা আরও ভালো বোঝা যাবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

আয়ারল্যান্ড থেকে হোয়াটসঅ্যাপে মিনহাজুল আবেদীন সারাবাংলা.নেটকে বলেন, ‘আশা করছি ও (সাকিব) ফিট আছে। তবে এখনই কিছু বলতে পারছি না। একদিন পর্যবেক্ষণে থাকবে। কাল জানা যাবে।’

শুক্রবার (১৭ মে) ফাইনালে টাইগারদের প্রতিপক্ষ উইন্ডিজ। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব সেই ম্যাচে খেলবেন কিনা, সেই সিদ্ধান্ত তার ওপরই ছেড়ে দিয়েছে দল। বৃহস্পতিবার দুপুরে টিম মিটিংয়ের পর টাইগার দলপতি মাশরাফি জানিয়েছেন, সাকিবকে নিয়ে পরিস্থিতি একটু জটিল। সে ফাইনালে খেলবে কী না সেটি এখনই বলা যাচ্ছে। সব কিছু তার ওপরই নির্ভর করছে।  পৃথিবীর কোনো ডাক্তার-ফিজিও দিয়ে এখানে কিছু করা সম্ভব নয়। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাইড স্ট্রেনের ব্যথা নামিয়ে ফেলাও সম্ভব না। যার চোট সে কেমন অনুভব করছে, সেটির ওপরই নির্ভর করছে সব কিছু। ফাইনালের আগ মুহূর্তে সাকিবের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানা যাবে।

বিজ্ঞাপন

ফাইনালকে সামনে রেখে আজ ঐচ্ছিক অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। সাকিব আজ অনুশীলন করেননি। হোটেল রুমে বিশ্রামে ছিলেন। তবে, সকালে তিনি জিম করেছেন। সাকিবের চোটটা তার পিঠের বাঁ দিকে মাংসপেশিতে। ব্যথা খুব একটা কমেনি।

মাশরাফি আরও জানিয়েছেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটে সাকিব কী, সবাই জানে। যদি সে ফাইনালে না খেলে, তাহলে সেটি মোটেও ভালো সংবাদ নয়। আবার এটাও বলব, সাকিবকে ছাড়াও ম্যাচ জেতার সামর্থ্য আমাদের অবশ্যই আছে। অধিনায়ক হিসেবে বলব, সাকিবের বদলে যে আসবে সে পেশাদার এবং তারও সামর্থ্য আছে পারফর্ম করার।

বুধবার (১৫ মে) ত্রিদেশীয় সিরিজে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বেশ স্বাচ্ছন্দেই ব্যাট করছিলেন এই টাইগার অলরাউন্ডার। কিন্তু ম্যাচের ৩৭তম ওভারের শেষ বলটি খেলেই দেখা যায় তিনি লুটিয়ে পড়েন। বেশ কিছু সময় তাকে মাঠে শুয়ে থাকতে দেখা যায়। এরপর ফিজিও তিহান চন্দ্রমোহন প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে ব্যাটিংয়ে ফেরালেও কিছু সময় ব্যাট করে খানিক বাদে মাঠ থেকে বেরিয়ে যান। ততক্ষণে অবশ্য ক্যারিয়ারের ৪২তম ফিফটি (৫০) তুলে নিয়েছেন এই ‘ম্যান অন অ্যা মিশন’।

চোট যেন কিছুতেই সাকিবের পিছু ছাড়ছে না। ফেব্রুয়ারিতে বিপিএলের ফাইনালে বাঁহাতের অনামিকায় পাওয়া চোটে ওই মাসে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন। প্রায় আড়াই মাস মাঠের বাইরে থাকা সাকিব ফিরেছিলেন আইপিএল দিয়ে।

এর এক মাস অতিক্রম না হতেই আবার তার চোট নিয়ে শঙ্কা। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল ম্যাচটি খেলতে পারবেন তো সাকিব? বিশ্বকাপের আগে সেরা এই অলরাউন্ডারকে নিয়ে কোনো ঝুঁকিও নিতে চাইছে না টিম ম্যানেজমেন্ট।

সারাবাংলা/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন