সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

বড়শিতে ধরা পড়লো দুমুখো মাছ!

আগস্ট ২৩, ২০১৯ | ১:৪৫ অপরাহ্ণ

বিচিত্রা ডেস্ক

দুমুখো সাপের কথা শুনেছেন কিংবা দেখেছেনও... কিন্তু দুমুখো মাছ দেখেছেন কী? না দেখেন নি তো! তবে আছে!! দুমুখো সাপের ক্ষেত্রে দুদিকেই মুখ থাকে। কিন্তু দুমুখো মাছের মুখ একদিকেই। একটির পাশে অন্যটি। এমনই একটি দুমুখো মাছ সম্প্রতি ধরা পড়েছে বড়শিতে।

বিজ্ঞাপন

মাছটি ধরা পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক আপস্টেট এর চ্যামপ্লেইন হৃদে। গেলো সপ্তার ঘটনা। এক দম্পতি সেখানে শখের বড়শি ফেলে অপেক্ষা করছিলেন মাছের। আর হঠাৎ বড়শিতে পড়লো টান। মাছ আদার খেয়েছে স্ত্রী ডেবি গেডেসের বরশিতে। মাছটি টেনে তুললেন উপরে। মাছ দেখেতো চক্ষু চড়কগাছ! আরে এর দেখি দু’দুটো মুখ!

মাছটি দেখে বিষ্মিত হলেও ছবি তুলতে ভুল করলেন না। তবে ছবি তুলে মাছটি ফের হৃদের পানিতে ছেড়ে দেন তারা।

গেডেসকে উদ্ধৃত করে ফক্স নিউজ এই খবরে বলছে, ‘মাছটি যখন আমরা টেনে নৌকায় তুললাম, দেখি এর দুটি মুখ। চোখের তাকানোও অন্যরকম। বেশ বড়সড়। আর দেখতেও বেশ।’

বিজ্ঞাপন

‘আমরা খুব দ্রুত কিছু ছবি তুলে ফেললাম, আর দ্রুতই মাছটি পানিতে ছেড়ে দিলাম,’ বলেন ডেবি গেডেস।


মাছটি ছেড়ে দিলেন হ্রদে, আর ছবিটি পোস্ট করা হলো ফেসবুকে। সেটি অবশ্য গেডেসের কম্ম নয়, পোস্ট দিলেন তার এক সহকর্মী অ্যাডাম ফ্যাক্টিউ। আর যায় কোথা! নিমিষেই ভাইরাল। স্যোশাল মিডিয়ার হিরো হয়ে উঠেছে দুমুখো মাছটি। নটি বয়েস ফিশিং নামে একটি ফেসবুক পেজে এই ছবি পোস্ট দেওয়ার পর বুধবার (২১ আগস্ট) বিকাল অবধি সেটি শেয়ার হয়েছে আরও ৫০০০ বার। হাজারের বেশি মন্তব্য পড়েছে। কেউ কেউ এই অদ্ভুত মাছের পেছনে জলবায়ুর পরিবর্তনকেই কারণ হিসেবে দেখছেন।

পরিবেশ দুষণকে কারণ হিসেবে মেনে নিতে রাজি ফ্যাক্টিউ। চ্যাম্প্লেইন হৃদটির দুষণও দীর্ঘ দিন ধরে আলোচনায়। কারণা কানাডার পয়ঃনিষ্কাশনের ডাম্পিং গ্রাউন্ড হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে এটি।

আর গেডেস বলছেন, বিষয়টি অন্য কিছুও হতে পারে। তার মতে, আগে হয়তো কারও বড়শিতে ধরা পড়েছিলো মাছটি। তবে তা ছিড়ে বের হয়ে যায়। এতে দুটো মুখের সৃষ্টি হয়।

তবে সামাজিক মাধ্যমে অধিকাংশেরই মত, পরিবেশ দুষণেরই ফল এই দুমুখো মাছ!

সারাবাংলা/এমএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন