বিজ্ঞাপন

২৭টি দেশ থেকে আসবে ২০ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ

November 28, 2019 | 5:02 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ২০.৮ বিলিয়ন ডলারের নতুন বিনিয়োগ আসবে বাংলাদেশে। কনফেডারেশন অব এশিয়া প্যাসিফিক চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিভুক্ত (সিএসিসিআই) ২৭টি দেশ থেকে এই বিনিয়োগ আসবে। অবকাঠামো, পর্যটন, অটোমোবাইলসহ দেশের বিভিন্ন খাতে এই বিনিয়োগ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্প‌তিবার (২৮ নভেম্বর) রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এফবিসিসিআই ও সিএসিসিআইর যৌথ সংবাদ স‌ম্মেল‌নে এ তথ্য জানান এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিএসিসিআই সভাপতি মি. সামির মোদি।

এর আগে, কনফেডারেশন অব এশিয়া প্যাসিফিক চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিএসিসিআই) সঙ্গে এফবিসিসিআইয়ের ৩৩তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দু’দিনের সম্মেলন থেকে প্রাপ্তি সম্পর্কে জানাতেই এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশসহ ২৮টি দেশ এতে অংশ নেয়।

বিজ্ঞাপন

এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ‘কাসি (কনফেডারেশন অব এশিয়া প্যাসিফিক চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি) নেটওয়ার্কের ভেতরে ২০.৮ বিলিয়ন ডলারের একটি বিনিয়োগ পুল আমরা আইডেন্টিটিফাই করেছি। এই বিনিয়োগ বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে হবে। কাসি অর্থনৈতিক জোনের ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। সেখানে কাসিভুক্ত দেশগুলো বিনিয়োগ করতে পারবে। ২০.৮ বিলিয়ন ডলারের যে ইনভেস্টমেন্ট পুল আমরা আইডেন্টিফাই করেছি সেখানে ইনফাস্ট্রেকচার, হসপিটালিটি, মোটরবাইকের বাই পার্টস লিংকেজসহ অন্যান্য ইন্ড্রাস্ট্রিতে বিনিয়োগ হবে।’

সম্মেলনে দু’টি চুক্তি সই হয়েছে জানিয়ে ফাহিম বলেন, ‘এই কনফারেন্সে দুটো এমওইউ সই হয়েছে। বাংলাদেশের যতো চেম্বার আছে, এফবিআইয়ের যতো মেম্বার আছে, সবাইক ই-চেম্বারের গ্লোবাল প্ল্যাটফর্মে সংযুক্ত হবে এবং এটা রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। এতে আমাদের রিমোট এলাকার যে চেম্বার আছে, সেই চেম্বারের যে মেম্বাররা আছেন তাদের পণ্য বিটুবি প্ল্যাটফর্মে এসসেস পাবে, গ্লোবাল প্লাটফর্মে।’

তিনি বলেন, ‘যেমন ফার্নিচার এসোসিয়েশনের মেম্বাররাও এই নেটওয়ার্কে যাবে। বিটুবি প্ল্যাটফর্মে তাদের পণ্য ডিসপ্লে করতে পারবে, এতে কোনো বিনিয়োগ ছাড়াই তাদের মার্কেট শেয়ার আরও বাড়বে।’

অন্য চুক্তি প্রসঙ্গে ফাহিম বলেন, ‘আরেকটি চুক্তি হয়েছে ইন্টারন্যাশনাল কলেজ অব অ্যাডভান্স ইলেডুকেশন অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। ওনারা আমাদের এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে ট্রেনিং মডিউল শেয়ার করবে। এর ফলে আমাদের উদ্যোক্তাদের কর্মসক্ষমতা বাড়বে।’

সিএসিসিআই সভাপতি সামির মোদি বলেন, ‘বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন খুবই আশাব্যঞ্জক। বিদেশি বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন পুরোপুরি প্রস্তুত। এখানে আমরা আগের চেয়ে অধিক বিনিয়োগ করতে আগ্রহী।’

সারাবাংলা/ইএইচটি/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন