বিজ্ঞাপন

অবিশ্বাস্য, দুর্দান্ত বার্সেলোনায় বিধ্বস্ত ভিয়ারিয়াল

September 28, 2020 | 2:52 am

স্পোর্টস ডেস্ক

অবিশ্বাস্য! কে বলবে এই তো কদিন আগে এই বার্সেলোনা বায়ার্ন মিউনিখের বিরুদ্ধে ইতিহাসের সবচেয়ে লজ্জাজনক হারের সম্মুখীন হয়েছিল। কে বলবে এই ক্লাবের ওপর দিয়ে বয়ে গেছে কালবৈশাখী ঝড়। তবে সবকিছুকে পাশ কাটিয়ে নতুন মৌসুমে দুর্দান্ত শুরু রোনাল্ড কোম্যানের বার্সেলোনার। ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে আনসু ফাতি, লিওনেল মেসিরা গুনে গুনে চারবার জালে জড়িয়েছে বল। নির্ধারিত ৯০ মিনিট শেষে ৪-০ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মৌসুম শুরু করে বার্সেলোনা।

বিজ্ঞাপন

ক্যাম্প ন্যু'তে ম্যাচের ৩০ মিনিট পেরুতে না পেরুতেই ম্যাচ নিজেদের হাতের মুঠোয় নিয়ে আসে আনসু ফাতি আর লিওনেল মেসি মিলে। ভিয়ারিয়ালের জালে তিনবার বল জড়ান। আর প্রথমার্ধ শেষের বাঁশি বাজার আগে পাউ তোরেসের আত্মঘাতি গোলে জয় অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায় বার্সেলোনার। শুরুটা করেছিলেন বার্সার তরুণ তুর্কি আনসু ফাতি।

ম্যাচের ১৫ মিনিটে জর্দি আলবার দুর্দান্ত এক পাসে কোম্যান সাম্রাজ্যের প্রথম গোল করেন আনসু ফাতি। এর মিনিট চারেক পরে বায়ার্ন মিউনিখ থেকে ফিরে আসা ফিলিপ কুতিনহোর অ্যাসিস্ট থেকে নিজেদের এবং দলের দ্বিতীয় গোল করেন ফাতি। তবে বদলে যাওয়া বার্সার শুরুটা তো এখান থেকেই। একের পর এক দুর্দান্ত আক্রমণে বিপর্যস্ত ভিয়ারিয়ালের রক্ষণ। ফাতি-গ্রিজম্যান-লিওনেল মেসির ত্রিমুখী আক্রমণে দিশেহারা ইয়োলো সাবমেরিন।

বিজ্ঞাপন

অবিশ্বাস্য, দুর্দান্ত বার্সেলোনায় বিধ্বস্ত ভিয়ারিয়াল

ম্যাচের সময় আধা ঘণ্টা পেরিয়ে তখন চার মিনিট, বল নিয়ে ভিয়ারিয়ালের ডি বক্সে ঢুকে পড়া ফাতিকে ফাউল করে গ্যাস্পার আর সঙ্গে সঙ্গে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। ফাতির সামনে হ্যাটট্রিকের সম্ভবনা থাকলেও মৌসুমের প্রথম গোল করার সুযোগটা নিজেই নিলেন লিওনেল মেসি। স্পট কিক থেকে ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে গোল করে বার্সাকে এগিয়ে নিলেন ৩-০ গোলের ব্যবধানে। তবে তখনও থামার লক্ষণ দেখা যাচ্ছিল না মেসি-গ্রিজম্যান-কুতিনহোদের মধ্যে। আক্রমণের ধার এতটুকুও কমেনি বরংচ বেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

প্রথমার্ধের নির্ধারিত ৪৫ মিনিট তখন শেষ, যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে মেসি ডি বক্সে বল চিপ করেন বুস্কেটসকে লক্ষ্য করে আর বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে পায়ে লাগিয়ে বল নিজের জালে জড়িয়ে ফেলেন ভিয়ারিয়াল ডিফেন্ডার পাও তোরেস। আর তাতেই প্রথমার্ধ শেষে ৪-০ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা।

বিরতি থেকে ফিরে সেই চিরচেনা বার্সেলোনা। আনসু ফাতি আর মেসির জুটি জমে উঠেছে তখন দুর্দান্ত ভাবে। ম্যাচের ৪৯ মিনিটে মেসি ফাতির ওয়ান টু ওয়ানে মেসি শট নিলে দুর্দান্তভাবে তা রুখে দেয় ভিয়ারিয়াল গোলরক্ষক। এরপর ম্যাচের ৬৩ মিনিটে গোল পরিশোধের একটি সুযোগ পায় ভিয়ারিয়াল তবে বার্সা গোলরক্ষক নেতোর কল্যাণে সে যাত্রায় রক্ষা পায় কাতালানরা। এরপর শেষ দিকে আরও কিছু সুযোগ পায় বার্সেলোনা তবে তা আর গোলে পরিণত হয়নি বলে শেষ পর্যন্ত ৪-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন