বিজ্ঞাপন

‘নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধিতে দুর্বিষহ জনজীবন’

October 16, 2021 | 9:47 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধিতে জনজীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী। শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিজ্ঞাপন

কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন শরিফ অবমাননাকারীদের বিচার এবং দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণের দাবিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (উত্তর ও দক্ষিণ) এ সমাবেশ আয়োজন করে।

প্রিন্সিপাল মাদানী বলেন, ‘কোনো প্রকার কারণ ছাড়াই বারবার নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির কারণে জনজীবন চরম দুর্বিষহ হয়ে উঠছে। সরকার সিন্ডিকেটের কাছে মাথা নত করেছে।’

বিজ্ঞাপন

কুমিল্লার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘কোরআন রেখে যারা ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করতে চায় তাদের খুঁজে বের করে কঠোর শাস্তির আওতায় আনা সরকারের দায়িত্ব। কিন্তু তা না করে প্রধানমন্ত্রী একটি পক্ষ অবলম্বন করে বিবৃতি দিয়ে দোষীদের আড়াল করার চেষ্টা করেছেন।’

দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি প্রসঙ্গে বলেন, ‘লজ্জা থাকলে বাণিজ্যমন্ত্রী বহু আগেই পদত্যাগ করতেন। জনগণের সাথে মন্ত্রীদের কোনো সম্পর্ক নেই বলেই বারবার জিনিসপত্রের দাম বাড়ানো হচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

দলের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান বলেন, ‘দেশ ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্রের মুখে। স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বও হুমকির মুখে। মানুষের জানমাল ইজ্জত আব্রু রক্ষার দায়িত্ব সরকারের। কুমিল্লায় প্রশাসনের নিরাপত্তা বেস্টনি ভেদ করে কীভাবে কোরআন অবমাননা করা হলো? এতে বোঝা যায়, দেশ সরকারের নিয়ন্ত্রণে নেই।’

ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মাওলানা লোকসমান হোসাইন জাফরী, মাওলানা নেছার উদ্দিন, ছাত্রনেতা শরীফুল ইসলাম রিয়াদ, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ডা. শহিদুল ইসলামসহ অন্যরা।

বিজ্ঞাপন

সমাবেশ শেষে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট থেকে মিছিল বের হয়ে পল্টন মোড় হয়ে বিজয়নগর মোড়ে পৌঁছলে মিছিলের গতি রোধ করে। পরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে মিছিল সমাপ্তি ঘোষণা করেন নেতারা।

সারাবাংলা/এজেড/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন