বুধবার ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং , ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

‘মুই ক্যাংকরি কমু বাহে, ভোট তো পাই না’

সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৮ | ১২:২২ অপরাহ্ণ

।। সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট ।।

ঢাকা: সরকার রংপুর এলাকার জন্য শত উন্নয়ন করলেও সেখানকার সব ভোট লাঙ্গল মার্কায় চলে যায় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ নিয়ে রংপুরের স্থানীয় ভাষাতেই খানিকটা হাস্যরস করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘রংপুরের জন্য তো অনেক কাজ করে দিচ্ছি। … মুই ক্যাংকরি কমু বাহে, ভোট তো পাই না। নৌকায় ভোট পাই না। তার কী হবে? ভোট তো চলে যায় লাঙ্গলে!’

রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে গাজীপুর ও রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রংপুরের স্থানীয় একজনের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন- ‘পুলিশের ওপর মানুষের আস্থা ফিরে এসেছে’

রংপুর ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর সেখানকার কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ প্রথমে একজন স্থানীয় উপকারভোগীকে কথা বলার সুযোগ করে দেন। এরপর স্থানীয় আরেক বাসিন্দার অভিজ্ঞতা বিনিময়ের সুযোগ পেতে প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি চান কমিশনার।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদকে বলেন, আচ্ছা আপনি দেন। এত দিলেও কী হবে, রংপুর তো ভোট দেয় না আমাদের!

এরপর শমরিতা ঘোষ তানিয়া রংপুরবাসীর পক্ষ থেকে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের জন্য কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রীকে। তিনি বলেন, ফুলছড়ি ঘাটে বালাশী ব্রিজটা যদি করেন, তাহলে রংপুর থেকে ঢাকার যোগাযোগ মাত্র চার ঘণ্টায় হবে। আমরা আমরা আশা করি, রংপুরবাসীর জন্য আপনি (প্রধানমন্ত্রী) এটা করে দেবেন।

আরও পড়ুন- গাজীপুর ও রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের যাত্রা শুরু

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি একটু বলতে চাই, এই ব্রিজ করা কিন্তু সম্ভব না। তার কারণ, যমুনা নদীর ওপর ব্রিজ করবার জন্য স্বাধীনতার পর জাতির পিতা যখন ১৯৭৩ সালে জাপান সফরে যান, তখন জাপানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয় তার। তখন তারা ফিজিবিলিটি স্টাডি করে যমুনা নদীর ওপর। ওই ফিজিবিলিটি স্টাডির মাধ্যমেই যমুনা সেতুটা তৈরি হয়েছে। এর স্থানও ওই স্টাডির ওপর ভিত্তি করেই। তবে বালাশী ঘাট থেকে আমরা বাহাদুরাবাদ ঘাট পর্যন্ত একটা ফেরি সার্ভিস যেন ফের চালু হয়, সেই চেষ্টা করছি। আর একটা সমীক্ষা আমরা চালাচ্ছি যে নদীর তলদেশ দিয়ে কোনো টানেল করা যায় কি না। যদি টানেল করা যায়, সেটা আরও কার্যকর হবে।’

কথাপ্রসঙ্গেই রংপুরের স্থানীয় ভাষায় খানিকদা মৃদু হাস্যরসের ভঙ্গিতে প্রধানমন্ত্রী বলে ওঠেন, ‘রংপুরের জন্য তো অনেক কাজ করে দিচ্ছি। … মুই ক্যাংকরি কমু বাহে, ভোট তো পাই না। নৌকায় ভোট পাই না, তার কী হবে! ভোট তো চলে যায় লাঙ্গলে!’ বলতে বলতে হেসে ওঠেন রংপুরের পুত্রবধূ শেখ হাসিনা। এ সময় উপস্থিত সবাইও হেসে ওঠেন।

গণভবনে উপস্থিত সবার প্রতি প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘রংপুরের লোক এখানে কে কে আছেন? মুই ক্যাংকরি কও বাহে, হামাক তো ভোট দেয় না। আশা করি, এবার নৌকায় ভোট পাব আমরা।’

পরে গাজীপুর পুলিশ লাইনস মাঠে উপস্থিত সেখানকার পুলিশ কর্মকর্তারা ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে।

সারাবাংলা/এনআর/টিআর

‘মুই ক্যাংকরি কমু বাহে, ভোট তো পাই না’
‘মুই ক্যাংকরি কমু বাহে, ভোট তো পাই না’
‘মুই ক্যাংকরি কমু বাহে, ভোট তো পাই না’