মঙ্গলবার ২৩ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৮ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি: মেয়াদ শেষ, নেই নির্বাচনের তোড়জোড়

মে ২৫, ২০১৯ | ৫:০৫ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির শেষ নির্বাচন হয়েছিল ২০১৭ সালের ৫ মে। আর নির্বাচিত নতুন কমিটি শপথ নিয়েছিল একই মাসের ২৫ তারিখ। সে হিসেবে আজ শনিবার (২৫ মে) নির্বাচিত কমিটির দুই বছর মেয়াদের শেষ দিন।

শিল্পী সমিতির গঠনতন্ত্রে মেয়াদ শেষ হওয়ার তিন মাসের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু নতুন নির্বাচন নিয়ে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কোনো তোড়জোড় চোখে পড়ছে না। এমনকি এই বিষয়ে শিল্পী সমিতির নেতারা প্রকাশ্যে কথা বলতে রাজি হননি।


আরও পড়ুন :  স্বজনপ্রীতি চাপ বা বিনিময়ের অভিযোগ ভিত্তিহীন: নাসির উদ্দীন ইউসুফ


এ বিষয়ে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘সবেমাত্র মেয়াদ শেষ হলো। আশাকরি তিন মাসের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া এই বিষয়ে তেমন কিছু বলার নেই।’

নির্বাচন নিয়ে কথা বলতে রাজি হননি বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি চিত্রনায়ক রিয়াজ। রোজার দোহাই দিয়ে বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে তিনি বলেন, ‘শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে এখন কিছু বলতে চাই না। রোজার সময় অযথা একটা বিষয় নিয়ে কথা বলা ঠিক হবে না।’

বিজ্ঞাপন

এদিকে গত ২০১৭-১৯ মেয়াদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচনের নির্বাচন কমিশনার চলচ্চিত্র পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবরও নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো তথ্য জানেন না। তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী, নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার তিন মাস আগে থেকে কমিটি গঠন করতে হবে। তারপর নির্বাচনের সব দায়িত্ব সেই কমিটির হাতে তুলে দিতে হবে। পরবর্তীতে সেই কমিটি নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করবেন। কিন্তু শিল্পী সমিতি কেনো এ বিষয়ে এখনো চুপ আমার জানা নেই।’

উল্লেখ্য, গত নির্বাচনে জয়ী হয়ে শিল্পী সমিতির নেতৃত্বে আসে মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান প্যানেল। তখন তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ওমর সানি ও অমিত হাসানের প্যানেল।

সারাবাংলা/আরএসও/পিএম


আরও পড়ুন :

.   ঈদে তুহিন হোসেনের তিন নাটক, এক টেলিছবি

.   ব্যবসায়ী ক্যাটরিনা

.   ওরা তিনজন ছাড়া হলিউডে কোনো তারকা নেই: কুয়েন্তিনো তারান্তিনো

.   নজরুল ও আমি যতটা কাছের, ঠিক ততটাই দূরের: ফাতেমা তুজ জোহরা


বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন