বিজ্ঞাপন

আশরাফুল রানার চোখে ফুটবলের ৩ ভবিষ্যৎ তারকা

July 4, 2020 | 1:43 am

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: জাতীয় ফুটবল দলের গোলবারের নিচে গত পাঁচ বছর ধরে ভরসার অদ্বিতীয় জায়গা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন আশরাফুল রানা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের এই অধিনায়ক গ্লাভস হাতে এক ভরসার নাম দেশের সমর্থকদের কাছে। প্রতিনিয়ত নিজেকে শানিয়ে দুর্দান্তরূপে হাজির হওয়া এই গোলরক্ষককে অনুসরণ করেন অনেকেই।

বিজ্ঞাপন

সেই আশরাফুল রানা দেশের ফুটবলের ভবিষ্যত দেখেন তরুণ ফুটবলারদের চোখে। বিমহিত হোন উদীয়মান ফুটবলারদের পারফরম্যান্সে। দেশের ফুটবলে খেলছে এমন তিনজন ফুটবলারকে মনে ধরেছে রানার। যারা ভবিষ্যতে জাতীয় দলের হাল ধরবেন। আলো ছড়াবেন দেশের ফুটবলে।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে রানার কাছে সারাবাংলা জানতে চেয়েছিল তিন উদীয়মান ফুটবলারের নাম। যারা আলো ছড়াবে ভবিষ্যতে।

বিজ্ঞাপন

এখন প্রিমিয়ার লিগে খেলছেন ও জাতীয় দলেও সুযোগ করে নিয়েছেন এমন তিন উদীয়মান ফুটবলারকে মনে ধরেছে রানার, ‘সবার খেলা ওইভাবে দেখা হয় নাই। তবে জাতীয় দলের খেলোয়াড় আছে যেমন ফয়সাল আহমেদ ফাহিম, ইয়াসিন আরাফাত, রিয়াদুল হাসান রাফি।’

রিয়াদুল হাসান রাফি: বিশ্বকাপ প্রাক-বাছাইয়ে প্রথমবারের মতো গত বছরে ডাক পাওয়া তরুণ ডিফেন্ডার রিয়াদুল হাসান রাফির কথা উল্লেখ করেছেন রানা। ইতোমধ্যেই নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন রাফি। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রথম চার ম্যাচে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন রাফি। তপু বর্মন ও টুটুল বাদশার অবর্তমানে দারুণ পারফরম্যান্স করে জাতীয় দলে জায়গা পাকাপোক্ত করেছেন এই ডিফেন্ডার।

ফয়সাল আহমেদ ফাহিম:
রানার চোখে আরেক উদীয়মান ফুটবলার হলেন ফয়সাল আহমেদ ফাহিম। গত ২০১৭ সালে অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ চ্যাম্পিয়ন শিপে সোনার বুট জিতেছিলেন সিরাজগঞ্জের এই ফুটবলার। এরপর গত বছর অনূর্ধ্ব-১৮ সাফেও জিতেছিলেন সোনার বুট। বয়সভিত্তিক ফুটবলে আলো ছড়ানো এ কিশোর সাইফ স্পোর্টিংয়ের জার্সিতে ঘরোয়া ফুটবলেও উজ্জ্বল। তাই গেল বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে জাতীয় দলে ফাহিমকে ক্যাম্পে ডেকেছিলেন জাতীয় দলের প্রধান প্রশিক্ষক জেমি ডে।

ইয়াসিন আরাফাত:
বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলে আরেক চমক ইয়াসিন আরাফাতও রানার চোখে উদীয়মান ফুটবলার যিনি ভবিষ্যতে আলো ছড়াবেন বলে মনে করেন। একেবারে অপরিচিত এই লেফট ব্যাক কাতার বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে জেমি ডে বাহিনীর স্কোয়াডে সুযোগ পান। অবশ্য তিনি যে জাতীয় দলে ডাক পাবেন এই আত্মবিশ্বাস তার মনে ঢুকিয়ে দেন সাইফ স্পোটিংয়ের কোচ স্টুয়ার্ট হল। লিগে তার পরফরম্যান্সই বৃটিশ কোচকে ওই মন্তব্য করতে বাধ্য করে। ক্লাব কোচের এই প্রত্যাশার ব্যতিক্রম করেননি বাংলাদেশ দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে। তার পাশ মার্কও নারায়ণগঞ্জের এই উঠতি ফুটবলারের। শুধু জাতীয় দল নয় বয়সভিত্তিক প্রত্যেক দলের সদস্য ছিলেন ইয়াসিন আরাফাত। বয়সভিত্তিক দলে অধিনায়ক হিসেবেও আলো ছড়িয়েছেন তিনি। লেফ্ট ব্যাক হিসেবে খেলা এই ডিফেন্ডার গোল করতেও পারদর্শী। এমন নজরকাড়া পারফরম্যান্সই মনে ধরেছে তার সিনিয়র ফুটবলার আশরাফুল রানার।

মজার বিষয় হলো এই তিন ফুটবলারই প্রিমিয়ার লিগের দল সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবে খেলছেন শুরু থেকেই। নিজেকে ছাড়িয়েও যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত। ভবিষ্যতে এই তিনজন আলো ছড়াবেন এমনটাই প্রত্যাশা আশরাফুল রানার।

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন