বিজ্ঞাপন

উইঘুরদের নিয়ে প্রশ্ন তোলায় বিরক্ত ইমরান খান

June 21, 2021 | 6:26 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের উপর সরকারি নিপীড়নের ব্যাপারে কথা বলতে নারাজ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আন্তর্জাতিক টেলিভিশন এইচবিওকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কাশ্মির নিয়ে বিশ্ব নীরব বলে অভিযোগ তুলে উইঘুরদের নিয়ে কেন এত কথা হচ্ছে—সে প্রশ্ন তুলেন ইমরান খান।

বিজ্ঞাপন

সাংবাদিক জোনাথন সোয়ানের এক প্রশ্নের জবাবে ইমরান খান বলেন, ‘আফগানিস্তান থেকে আমেরিকা সৈন্য প্রত্যাহার করায় সংকট তৈরি হতে পারে। আল কায়দা, আইএস ও তালেবানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানে আমেরিকাকে পাকিস্তানে ঘাঁটি গড়ার অনুমতি দেওয়া হবে না’।

চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে প্রায় ১০ লাখ উইঘুর মুসলিমদের উপর সরকারি নিপীড়নের ব্যাপারে প্রশ্নের জবাবে ইমরান খান বলেন, ‘চীন আমাদের সবচেয়ে ভালো বন্ধু। আমাদের দুর্দিনে তারা সাহায্য নিয়ে এসেছে। তাদের সঙ্গে আমাদের যে কথাবার্তাই হয় তা বদ্ধদ্বার ঘরে হয়ে থাকে। আমরা তাদের জিনজিয়াং সম্পর্কে জিজ্ঞেস করেছিলাম। তারা জানিয়েছে সেখানে এরকম কিছু হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন

পাল্টা প্রশ্ন তুলে ইমরান খান আরও বলেন, চীনের জিনজিয়াং প্রদেশের বিষয়টি পশ্চিমা বিশ্বের কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু কাশ্মিরে ভারত যা করছে তা নিয়ে বিশ্ব যখন নীরবতা পালন করছে, ঠিক তখন জিনজিয়াং নিয়ে সারা বিশ্বে এত সরব কেন? আমি মনে করি এটি এক ধরনের ভণ্ডামি।

ইমরান খান এ সময় কাশ্মিরকে একটি উন্মুক্ত কারাগার হিসেবেও আখ্যায়িত করেন।

বিজ্ঞাপন

এসময় সাংবাদিক জোনাথন সোয়ান ইমরান খানকে প্রশ্ন করেন— চীন থেকে টাকা আসছে বলেই কি জিনজিয়াং বিষয়ে নীরব পাকিস্তান? জবাবে ইমরান খান বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় যেমন: ফিলিস্তিন, লিবিয়া, সোমালিয়া, সিরিয়া, আফগানিস্তানে বহু ঘটনা ঘটছে। আমি কি সব বিষয় নিয়ে কথা বলব? আমি শুধু আমার দেশের সীমান্ত ও আমাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে কথা বলব।

এসময় সাংবাদিক জোনাথন সোয়ান ইমরান খানকে স্মরণ করিয়ে দেন যে, চীনের জিনজিয়াং প্রদেশ পাকিস্তানেরও সীমান্তবর্তী এলাকা।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন

সারাবাংলা/আইই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন