বিজ্ঞাপন

ডিপাইয়ের পেনাল্টি মিসে রায়োর কাছে বার্সার হার

October 28, 2021 | 1:31 am

স্পোর্টস ডেস্ক

২০১১ সাল থেকে রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে টানা ১৩টি ম্যাচে জয় পেয়ে ১৪ নম্বর ম্যাচটিতে খেলতে নেমেছিল বার্সেলোনা। এই ১৩ ম্যাচে গড়ে প্রতি ম্যাচে ভায়োকানোর জালে ৪.১৪টি করে গোল করেছিল বার্সেলোনা। এবার সেই রায়ো ভায়োকানোর কাছেই হারতে হলো কাতালান ক্লাবটিকে। এটিই ভায়োকানোর বার্সেলোনার বিপক্ষে প্রথম জয়।

বিজ্ঞাপন

সময়টা ভালো যাচ্ছে না বার্সেলোনার। হারের বৃত্ত থেকে যেন বেরই হতে পারছে না কাতালান ক্লাবটি। রোববার ঘরের মাঠে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল। এবার রায়ো ভায়োকানোর কাছে হারল ১-০ গোলের ব্যবধানে। পেনাল্টি স্পট থেকে গোল করে বার্সাকে অন্তত এক পয়েন্ট এনে দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন মেমফিস ডিপাই কিন্তু সেটিও কাজে লাগাতে পারেননি এই ডাচ ফরোয়ার্ড।

পেড্রি, ডি ইয়ং, আনসু ফাতি এবং উসমান দেম্বেলের মতো তারকাদের ইনজুরির কারণে দল সাজাতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে রোনাল্ড কোম্যানকে। যার ছাপের দেখা মিলল ম্যাচে বার্সেলনোয়ার পারফরম্যান্সে। বল দখলে রায়োর চেয়ে ঢের এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে দুই দলই ছিল সমানে সমান। তবে সহজ সুযোগ হাতছাড়া করার মাশুল শেষ পর্যন্ত গুনতে হলো বার্সাকে।

বিজ্ঞাপন

ডিপাইয়ের পেনাল্টি মিসে রায়োর কাছে বার্সার হার

ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারতো ভায়োকানো। টার স্টেগানকে গোল লাইন ছেড়ে এগিয়ে আসতে দেখে তার মাথার ওপর দিয়ে চিপ করে বল জালে পাঠাতে চেয়েছিলেন ট্রেহো। তবে বিপদ বুঝতে পেরে কোনো রকমে সে যাত্রায় বার্সাকে রক্ষা করেন স্টেগান। এরপর দুই দলই দারুণ কয়েকটি আক্রমণ করেও একে অন্যের রক্ষণে ফাটল ধরাতে পারেনি।

বিজ্ঞাপন

৩০তম মিনিটে সার্জিও বুস্কেটসের কাছ থেকে বল কেড়ে নেন ভায়োকানোর মিডফিল্ডার অস্কার ট্রেহো। বল কেড়ে নিয়েই প্রতি আক্রমণে স্লাইডিং এক থ্রু বল বাড়িয়ে দেন রাদামেল ফ্যালকাওয়ের দিকে। কলম্বিয়ান এই স্ট্রাইকার সঙ্গে ছিলেন জেরার্ড পিকে তবে তিনি রুখতে পারেননি ফ্যালকাওকে। পিকেকে কাটিয়ে বাঁকানো শটে বল জালে জড়িয়ে ভায়োকানোকে ১-০ গোলের লিড এনে দেন ফ্যালকাও।

চার মিনিট পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। টার স্টেগানের ভুল পাসে বল পেয়ে যান প্ল্যাজন, এরপর এরিক গার্সিয়াকে কাটিয়ে ডি বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি কিন্তু শেষ পর্যন্ত শট মেরে বল গোলপোস্টের ওপর দিয়ে বাইরে পাঠিয়ে দেন। আর এতেই ভুল করেও শাস্তি থেকে রক্ষা পান স্টেগান। এতেই প্রথমার্ধে ১-০ গোলে পিছিয়ে থেকে শেষ করে বার্সা।

বিজ্ঞাপন

ডিপাইয়ের পেনাল্টি মিসে রায়োর কাছে বার্সার হার

বিরতির পর ফিরে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে বার্সা। তবে কিছুতেই ভায়োকানোর রক্ষণ দুর্গ ভাঙতে পারছিল না। অবশেষে আসে গোল করার সবচেয়ে সহজ সুযোগ। ম্যাচের ৭১তম মিনিটে মেমফিস ডিপাই বল নিয়ে ঢুকে পড়েন ডি বক্সে, যেখানে তাকে ফাউল করেন স্যাভেলিখ। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি, স্পটকিক নিতে আসেন ডিপাই নিজেই। তবে বাঁ দিকের নিচের দিকে মারা ডিপাইয়ের শট রুখে দেন ভায়োকানোর গোলরক্ষক।

বিজ্ঞাপন

শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল করতে পারেনি দুই পক্ষের কেউই। এতেই বার্সাকে ১-০ গোলের ব্যবধানে হারায় রায়ো ভায়োকানো।

এই জয়ে ১১ ম্যাচে ৬ জয়, এক ড্র এবং ৪ হারে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে উঠে এসেছে রায়ো ভায়োকানো। অন্যদিকে ১০ ম্যাচে ৪টি জয় আর তিনটি করে ড্র এবং হারে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে ৯ নম্বরে আছে বার্সেলোনা।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন