বিজ্ঞাপন

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

September 29, 2020 | 3:18 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আদালতের নির্দেশনা না মানায় গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল মতিনের বিরুদ্ধে কেন আদালত অবমানার অভিযোগ আনা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী সাতদিনের মধ্যে তাকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী। সঙ্গে ছিলেন আছরারুল হক, মো. আমিনুর রহমান চৌধুরী।

পরে আইনজীবী আছরারুল হক জানান, ২০১৬ সালের ৩১ অক্টোবর গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ১৩ নম্বর কামারদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচনে জয়লাভ করেন মো. তৌফিকুল ইসলাম। দীর্ঘ সময় পরেও তার নামে গেজেট প্রকাশ না করায় ২০১৭ সালে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন তৌফিকুল। তার আবেদনের শুনানি নিয়ে ওই বছরের ২৯ অক্টোবর হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে গেজেট প্রকাশ করে তার শপথের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও নির্দেশ দেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

তবে হাইকোর্টের এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিলে আবেদন করেন তার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী সৈয়দ শরীফুল ইসলাম। তার আবেদনের শুনানি নিয়ে আপিল বিভাগ সেটি খারিজ করে দেন। এরই মধ্যে তৌফিকুল ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণাসহ গেজেট প্রকাশ করে ২০১৮ সালের ৩ জুলাই নির্বাচন কমিশন গাইবান্ধার জেলা প্রশাসককে শপথ পড়াতে নির্দেশ দেন।

নির্বাচন কমিশন ও হাইকোর্টের নির্দেশনার পরও দীর্ঘদিন ধরে তাকে শপথ না পড়ানোয় জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে হাইকোর্টে আবেদন করেন তৌফিকুল ইসলাম। তার ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত আজ গাইবান্ধার জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগে রুল জারি করেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এজেডকে/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন