বিজ্ঞাপন

মোবাইল অ্যাপে যুক্ত হলো বাংলাদেশ বেতার

December 19, 2020 | 7:32 pm

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশ বেতারের ৮১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ‘বাংলাদেশ বেতার’ অ্যাপ উদ্বোধন করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। এর মধ্য দিয়ে ১৯৩৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর যাত্রা শুরু করা এই সংস্থাটির সকল সম্প্রচার এখন সারাবিশ্বে মোবাইলে শোনার দিগন্ত উন্মোচন হলো।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে জাতীয় বেতার ভবনে বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক হোসনে আরা তালুকদারের সভাপতিত্বে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, তথ্যসচিব খাজা মিয়া, বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ। এ সময় বেতারের সকল কর্মকর্তা ও কলাকুশলীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যের আগে ‘বাংলাদেশ বেতার’ অ্যাপস এবং বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের দেশব্যাপী সম্প্রচার উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

ড. হাছান মাহমুদ এ সময় বলেন, ‘এখন সোশ্যাল মিডিয়ার যুগ। মোবাইল ফোনের ব্যবহার অনেক বেশি। মানুষ আগের মতো ঘরে-বাইরে আলাদা করে রেডিও শোনে না। হাতে হাতে মোবাইল। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়ার পর চিন্তা করেছি বেতারকে মোবাইলের মধ্যে নিয়ে যেতে হবে। নইলে বেতারকে আবার জনপ্রিয় করে তোলা কঠিন হবে। সেকারণেই মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে যাতে বেতারের অনুষ্ঠানমালা শোনা যায়, সেজন্য বেতারকে অনুরোধ জানিয়েছিলাম। এখন অ্যাপের কল্যাণে দেশের ছয়টি কেন্দ্রের অনুষ্ঠান সারা পৃথিবীর মানুষ শুনতে পাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘অ্যাপকে পরিচিত করতে এর প্রচার নিশ্চিত করা জরুরি। কারণ মোবাইলে ডাউনলোড করা না থাকলে তো শ্রোতা এই সুবিধা পাবেন না। সুতরাং এই অ্যাপকে পরিচিত করতে গণমাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার করা জরুরি।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘বেতারের অন্য কেন্দ্রের অনুষ্ঠান দেশব্যাপী শোনা যায় না। চট্টগ্রাম দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। প্রধান বাণিজ্য নগরী। চট্টগ্রাম কেন্দ্রের অনুষ্ঠান আজ থেকে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সব কেন্দ্রের মাধ্যমে শোনানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। অন্যান্য কেন্দ্রগুলোকে কীভাবে এর আওতায় আনা যায় সে ব্যবস্থা নিতে বেতারের সংশ্লিষ্ট ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের প্রকৌশলীদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

ড. হাছান এ সময় সমসাময়িক প্রসঙ্গে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ পৃথিবীকে অবাক করে দিয়ে এই করোনা মহামারির মধ্যেও ধনাত্মক জিডিপি ধরে রেখে পৃথিবীর ২২টি দেশের অন্যতম সেরাস্থানে আসীন। অথচ বিএনপির নেতারা এ অভূতপূর্ব উন্নয়ন দেখেও দেখেন না। তারা ক্রমাগতভাবে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার আর বিভ্রান্তি ছড়াতে গিয়ে নিজেরাই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে।’

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানের আগে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ প্রতিমন্ত্রী, সচিব ও বেতারের মহাপরিচালককে সঙ্গে নিয়ে বেতারের ডিজ্যাবিলিটি ফ্যাসিলিটি লিফট উদ্বোধন করেন।

সারাবাংলা/জেআর/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন