বিজ্ঞাপন

ভাসানচর থেকে পালিয়ে আসা ৯ রোহিঙ্গা আটক

July 5, 2022 | 5:09 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

নোয়াখালী: জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় হাতিয়ার ভাসানচর আশ্রয়ণ কেন্দ্র থেকে পালিয়ে আসা ৯ রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। এর মধ্যে দুইজন নারী, চারশিশু ও তিনজন যুবক রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

আটককৃত রোহিঙ্গাদের গতকাল সোমবার (৪ জুলাই) মধ্য রাতে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এর আগে, রাত ৯টার দিকে উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের পেশকারহাট রাস্তার মাথা এলাকা থেকে তাদের আটক করে স্থানীয়রা।

আটককৃত রোহিঙ্গারা হলেন- ভাসানচর আশ্রয়ণ কেন্দ্রের ৮৩ নং ক্লাস্টারের মৃত লোকমান হাকিমের ছেলে নুরুল হাকিম (২৪) ২৮নং ক্লাস্টারের খলিলের ছেলে ওমর ফারুক (১৪) ৫৪নং ক্লাস্টারের নুর কবিরের ছেলে মাজেদ (১৫) ৭১নং ক্লাস্টারের মনিরুল হকের স্ত্রী মমতাজ বেগম (২০) একই ক্লাস্টারের মনিরুল হকের মেয়ে মনিকা বেগম (৮) ১৪নং ক্লাস্টারের নুরুল আমিনের স্ত্রী হোসনেয়ারা (২০) একই ক্লাস্টারের নুরুল আমিনের ছেলে নুর ছাদেক (৪) আনোয়োর ছাদেক (২) এবং ৮৩নং ক্লাস্টারের মো. মরি আহাম্মদের ছেলে জাহেদুল্লা (২১)।

বিজ্ঞাপন

চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য দিদার হোসেন সৌরভ জানান, গতকাল সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকা থেকে কয়েকটি মোটরসাইকেলে করে ৯ জন রোহিঙ্গা চরকাঁকড়া ইউনিয়নের পেশকারহাট রাস্তার মাথা এলাকায় আসেন। তখন হাতে-পায়ে কাদা মাখা অবস্থায় দুই রোহিঙ্গা নারী, চারশিশু ও তিনযুবক ওই এলাকায় ঘুরাফেরা করছিল। বিষয়টি স্থানীয়দের সন্দেহ হলে তাদের আটক করেন স্থানীয়রা। জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করেন।

জিজ্ঞাসাবাদে রোহিঙ্গারা জানান, চট্টগ্রামের চকরিয়া এলাকায় তাদের আত্মীয় থাকে। তারা আত্মীয় স্বজনের সঙ্গে দেখা করতে ভাসানচর আশ্রয়ণ ক্যাম্প থেকে দালালের সহযোগিতায় পালিয়ে আসেন। পরে রাতেই পুলিশের কাছে তাদের সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউপি সদস্য দিদার হোসেন সৌরভ।

বিজ্ঞাপন

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গতকাল সোমবার ভোর রাতের দিকে দালালের মাধ্যমে তারা ভাসানচর আশ্রয়ণ কেন্দ্র থেকে পালিয়ে আসেন ওই ৯ রোহিঙ্গা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরবর্তীতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

সারাবাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন