সোমবার ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১১ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘নন ব্যাংকিং গ্রাহকদের জন্য খেলাপিঋণের ২ শতাংশ সুবিধা কেন নয়’

ডিসেম্বর ২, ২০১৯ | ৬:৪৪ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা মোট ঋণের ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্ট জমা দিয়ে ঋণ পুনঃতফসিলের সুবিধা নন ব্যাকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদেরকে কেন দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

বিজ্ঞাপন

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে সোমবার (২ ডিসেম্বর) বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগের মহাব্যবস্থাপক, ব্যাকিং প্রবিধি ও নীতিমালা বিভাগের মহাব্যবস্থাপক, ফনিক্স ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ পাঁচজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী পলাশ চন্দ্র রায়, তাকে সহযোগিতা করেন আইনজীবী রাজু হাওলাদার পলাশ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুরউস সাদিক।

বিজ্ঞাপন

নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান ফনিক্স ফিন্যান্সের ঋণগ্রহীতা মো. ইউনুস পাটওয়ারী রিট আবেদনটি দায়ের করেন। এর আগে তিনি ফনিক্স ফিন্যান্স ও বাংলাদেশ ব্যাংকে ২ শতাংশ ঋণ সুবিধা পেতে আবেদন করেন। তাকে জানানো হয় এ ঋণ সুবিধা শুধুমাত্র ব্যাংকের ঋণ গ্রহীতাদের জন্য প্রযোজ্য। চলতি বছরের ১৬ মে ব্যাংকের ঋণখেলাপিদের ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্টের বিজ্ঞপ্তি জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতিমালা বিভাগ (বিআরপিডি)।

অন্যদিকে নন ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ন্ত্রিত হয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগের অধীন (ডিএফআইএম)। ফলে বিআরপিডির বিজ্ঞপ্তির সুবিধা ডিএফআইএম’র জন্য কার্যকর নয়।

গত ১২ সেপ্টেম্বর ইউনুস পাটওয়ারীর পক্ষে আইনী নোটিশ পাঠানো হয়। নোটিশের কোন জবাব না পাওয়ায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। যার শুনানি নিয়ে আদালত আজ এ আদেশ দেন।

গত ১৬ মে বাংলাদেশ ব্যাংক ঋণ পুনঃতফসিল সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করে। এতে ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্টে ৯ শতাংশ সরল সুদে ১০ বছরের ঋণ পরিশোধের সুযোগ দেওয়া হয় ঋণখেলাপিদের।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এজেডকে/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন