বিজ্ঞাপন

স্বপ্ন চূড়ার মেয়ে ফুটবলার হাসপাতালে ভর্তি

February 16, 2020 | 11:48 pm

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: নারী লিগ থেকে স্বপ্ন চূড়া ও আক্কেলপুল ফুটবল একাডেমিকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্তে যেন স্বপ্ন ভেঙে গেছে ২৩ উদীয়মান মেয়ে ফুটবলারের। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশের হঠাৎ সিদ্ধান্তে আকাশ ভেঙে পড়েছে স্বপ্ন চূড়ার ফুটবল ক্যাম্পে। এখনো মেনে নিতে পারছেন না ফুটবলাররা। তাদের একজন শোকে কাতর হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়েছে একাডেমির কর্তৃপক্ষকে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে একাডেমির ফুটবলার লাবনী আক্তার মিমকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

দলের ম্যানেজার রাকিব আহমেদ সারাবাংলাকে বলেন, ‘বাফুফে যখন গত ১২ ফেব্রুয়ারি দল বাতিল ঘোষণা করে, তখন থেকে মেয়েরা রীতিমতো খাবার খায়নি। এ থেকে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে খুব বেশি। তিনটি মেয়ে খুবই দুর্বল হয়ে পড়েছে। এর মধ্যে লাবনী আক্তার মিমের অবস্থা অবস্থা বেশি খারাপ হওয়ার কারণে তাকে বিকেল ৫টার দিকে কুর্মিটোলা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।’

বিজ্ঞাপন

সাবেক ফুটবলার কাননকে নিয়ে ২৫ জানুয়ারি থেকে অনুশীলন করছে সারাদেশ থেকে বাছাই করা স্বপ্ন চূড়ার ২৩ নারী ফুটবলার। ২০ জানুয়ারি রেজিস্ট্রেশন করে ২৬ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে দলবদলে অংশ নেয় একাডেমি। নিয়ম মেনেই একাডেমিকে লিগে অংশ নেওয়ার টিকিট দেয় বাফুফের নারী লিগ কমিটি। একাডেমিকে অন্তর্ভুক্ত করে লিগে ৮ দলের নাম ঘোষণা দেয় ফেডারেশন। লিগ দফায় দফায় পেছাতে পেছাতে ২২ তারিখে গিয়ে ঠেকে। ফিক্সচারও তৈরি। নাম নেই স্বপ্ন চূড়া একাডেমির।

১২ ফেব্রুয়ারি ইমেইলের মাধ্যমে ক্লাবের অংশ নেওয়ার আবেদন খারিজ করে দেয় ফেডারেশন। এমন সিদ্ধান্তে উঠতি নারী ফুটবলারদের স্বপ্ন ধ্বংসের মুখে বলে মনে করেন ক্লাবের কর্মকর্তারা।

স্বপ্ন চূড়াকে লিগে অন্তর্ভুক্ত করা হবে কি না— তা নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। এর মধ্যে আগামীকাল সোমবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বাফুফে ভবনে পৃষ্ঠপোষকদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তির কার্যক্রম সেরে নেবে ফেডারেশন। এসময় হয়তো স্বপ্ন চূড়াকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে পারে ফেডারেশন। তবে সিদ্ধান্ত বহাল থাকলে একাডেমি আইনের দ্বারস্থ হবে বলে জানিয়েছে একাডেমি কর্তৃপক্ষ।

সারাবাংলা/জেএইচ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন