বিজ্ঞাপন

প্রমা অবন্তী, বাংলাদেশে যার হাত ধরে ওড়িশি নৃত্যের যাত্রা

March 17, 2022 | 9:56 pm

আশীষ সেনগুপ্ত

ওড়িশি নৃত্য— প্রাচীনতম ভারতীয় নৃত্যকলার অন্যতম এই ধারা এখন শুধু ভারতবর্ষ নয়, সারা পৃথিবীতে খ্যাতি অর্জন করেছে তার অপরূপ ভাষা এবং সেই ভাষার মধ্য দিয়ে নৃত্যের অপরিসীম সৌন্দর্যের জন্য। মার্গনৃত্যের সুক্ষ্ম ইঙ্গিতময়তা, আধ্যাত্মিক চেতনা ও গভীর ভাবসম্পদ সমৃদ্ধ এই নৃত্যধারা ধীরে ধীরে প্রসারিত হচ্ছে বাংলাদেশের নৃত্যাঙ্গনেও।

বিজ্ঞাপন

ওড়িশি নৃত্যের এই প্রসার ও প্রচারে যে ক’জন নৃত্যশিল্পী নিরলস কাজ করে চলেছেন, তাদেরই একজন প্রমা অবন্তী। বলা হয়ে থাকে, এদেশে ওড়িশি নৃত্যচর্চায় তিনি অন্যতম। বাংলাদেশে তিনিই প্রথম ওড়িশী নৃত্যশিল্পী, যিনি প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় দীক্ষিত হয়ে উচ্চশিক্ষা লাভ করেছেন। ওড়িশী নৃত্যের প্রবাদ প্রতীম নৃত্যগুরু পদ্মবিভুষণ কেলুচরণ মহাপাত্র’র একমাত্র বাংলাদেশি শিষ্য প্রমা অবন্তী।

চট্টগ্রামে জন্ম ও বেড়ে ওঠা প্রমার নাচের শুরুটা বাবা-মা’র উৎসাহে মামী সীমা মুৎসুদ্দী বড়ুয়ার কাছে হাতেখড়ি নিয়ে। এরপর চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী নৃত্যশিক্ষা প্রতিষ্ঠান আলাউদ্দিন ললিতকলা কেন্দ্রে গুরু রুনু বিশ্বাসের কাছে নাচ শেখার সুযোগ হয় প্রমার। নাচের প্রতি ভালোবাসার টানে প্রমা একসময় পাড়ি জমান ভারতে। বাংলাদেশ থেকে মাধ্যমিক পাশ করেই তিনি ভর্তি হন পশ্চিমবঙ্গের রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানেই ১৯৯৭ সালে আই.সি.সি.আর বৃত্তি নিয়ে ‘ওড়িশী নৃত্যকলা’য় ‘ব্যাচেলর অব আর্টস’ এবং ১৯৯৯ সালে ‘মাস্টার অব আর্টস’ দুটিতেই প্রথম শ্রেণিতে প্রথম স্থান লাভ করেন প্রমা। রবীন্দ্রভারতীতে পড়াকালীন সময়েই পেয়েছিলেন ‘চন্ডিগড়’ বৃত্তি ও ‘উদয়শঙ্কর’ বৃত্তি।

বিজ্ঞাপন

দেশে ফিরে এক ব্যাতিক্রমি সিদ্ধান্ত নেন প্রমা। চট্টগ্রামের গুণীজনদের একান্ত অনুরোধে রাজধানীমুখী না হয়ে চট্টগ্রামেই স্থায়ী হন এই প্রতিভাবান শিল্পী। গঠন করেন নিজের নৃত্য প্রতিষ্ঠান ‘ওড়িশী অ্যান্ড টেগোর ডান্স মুভমেন্ট সেন্টার’। আর সেখানেই দীর্ঘ দুইদশক ধরে নিবিড়ভাবে ওড়িশী নৃত্যচর্চা করে চলেছেন প্রমা। নতুন প্রজন্মের নৃত্যশিল্পী তৈরিতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। ইতোমধ্যেই তার শিক্ষার্থীরা নৃত্যশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছেন দেশে এবং দেশের বাইরে।

আজকের সারাবাংলা কথোপকথনে আমরা শুনবো প্রমা অবন্তীর নৃত্যশিল্পী হয়ে ওঠার গল্প...

বিজ্ঞাপন

দিনের পর দিন সেবা করেছেন যুদ্ধাহত মুক্তিসেনাদের…আরও দেখুন

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন